ঈদে মিলাদুন্নবী ২ ডিসেম্বর

miladunnabi120171119185552.jpg

কক্সবাজার ডেস্ক :

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) আগামী ২ ডিসেম্বর উদযাপিত হবে। রোববার বাংলাদেশের আকাশে ১৪৩৯ হিজরি সনের পবিত্র রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে সোমবার পবিত্র সফর মাস ৩০ দিন পূর্ণ হবে এবং মঙ্গলবার ২১ নভেম্বর মঙ্গলবার থেকে পবিত্র রবিউল আউয়াল মাস গণনা শুরু হবে। সে হিসেবে আগামী ২ ডিসেম্বর শনিবার সারা দেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হবে।

রোববার সন্ধ্যায় বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আনিছুর রহমান।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. হাফিজুর রহমান, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব  (প্রেস) মো. মিজান-উল-আলম, অতিরিক্ত প্রধান তথ্য কর্মকর্তা ফজলে রাব্বী, ওয়াকফ প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক (প্রশাসন) মো. শাখাওয়াত হোসেন, আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আবদুর রহমান, সরকারি মাদ্রাসা-ই-আলিয়ার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দিন আহমদ, জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের সিনিয়র পেশ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, লালবাগ শাহী মসজিদের খতিব মাওলানা আবু রায়হান ও চকবাজার শাহী জামে মসজিদের খতিব মাওলানা শেখ নাঈম রেজওয়ান প্রমুখ।

বৈঠকের শুরুতে ১৪৩৯ হিজরি সনের পবিত্র রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা সম্পর্কে সকল জেলা প্রশাসন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রধান কার্যালয়, বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়সমূহ, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর এবং মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠান থেকে প্রাপ্ত তথ্য নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়। এতে দেখা যায় যে, রোববার সন্ধ্যায় বাংলাদেশের আকাশে পবিত্র রবিউল আউয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই সোমবার পবিত্র সফর মাস ৩০ দিন পূর্ণ হবে এবং মঙ্গলবার থেকে পবিত্র রবিউল আউয়াল মাস গণনা শুরু হবে। সে হিসেবে আগামী ১২ রবিউল আউয়াল (২ ডিসেম্বর) শনিবার সারা দেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপিত হবে।

৫৭০ খ্রিষ্টাব্দের ২৯ আগস্ট (১২ রবিউল আউয়াল) আরবের বিখ্যাত কুরাইশ বংশের আব্দুল্লাহ বিন আব্দুল মোত্তালিবের ঘরে জন্ম নেন মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)। মহানবীর (সা.) শুভাগমনের এই দিনটি ইসলাম ধর্মে অত্যন্ত তাৎপর্যবহ। দিনটি মুসলমানদের কাছে পবিত্র দিন হিসেবে পরিগণিত।

বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে এ দিনটি উদযাপন করেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top