প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিকতায় কুতুবদিয়ায় রেকর্ড পরিমান উন্নয়ন হচ্ছে কুতুবদিয়া থানার শত বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে এমপি আশেক

asek-mp-dc.jpg

এম এ মান্নান :
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুতুবদিয়া উপজেলাকে উন্নয়নে প্রধান্য দিচ্ছেন। ইতোমধ্যে এই উপজেলা শিক্ষার হারে সর্বোচ্চ স্থানে রয়েছে। শিক্ষার উন্নয়নে আরো কাজ করবে সরকার। সম্প্রতি এই উপজেলার নারীদের জন্য একটি মহিলা কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কখনই কুতুবদিয়াকে বিচ্ছিন্ন দ্বীপ ভাবেন না। যে কারণে বেড়িবাঁধ সহ দ্বীপের স্কুল,কলেজ,ভবন, রাস্তা নির্মানে প্রায় ৪‘শ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়ন করে যাচ্ছেন। শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) কুতুবদিয়া থানার এক‘শ বছর পুর্তি উদ্যাপন উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় কুতুবদিয়া-মহেশখালীর সাংসদ আলহাজ আশেক উল্লাহ রফিক প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
কুতুবদিয়া আয়োজিত শতবর্ষ উদ্যাপন অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহি অফিসার সুজন চৌধুরীর সভাপতিত্বে কুরআন তেলাওয়াত গীতা পাঠের মাধ্যমে শুরু হয়। বিশেষ অতিথির মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন,পুলিশ সুপার ড.একেএম ইকবাল হোসেন, জেলা আ‘লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যান, এডভোকেট আমজাদ হোসেন, মহেশখালী পৌর মেয়র মকসুদ মিয়া, বড়ঘোপ ইউপি চেয়ারম্যান জেলা আ‘লীগ নেতা এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী,জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সাধারণ সম্পাদক আবু হেনা মোস্তফা কামাল, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা মেহেরুন্নেছা, উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা ইমরান খান, উপজেলা আ‘লীগের সভাপতি আওরঙ্গজেব মাতবর,সাধারণ সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা নুরুচছাফা প্রমূখ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কুতুবদিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ দিদারুল ফেরদৌস।
এ ছাড়া সভায় াঅন্যান্যদের মাঝে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরফাজুল হক টুটুল, মহেশখালী-কুতুবদিয়া সার্কেল রতন কান্তি দাশ,চকরিয়া-পেকুয়া সার্কেল কাজী মতিউল ইসলাম, ওসি পেকুয়া মো. জহিরুল ইসলাম খান, জেলা আওয়ামী লীগরে সহ-সভাপতি এডঃ আমজাদ হোসেন, জেলা আ‘লীগ নেতা শফিউল আলম কুতুবী , জেলা আ‘লীগের সমবায় বিষয়ক সম্পাদক খোরশেদ আলম কুতুবী, মহেশখালী উপজেলা আ‘লীগ নেতা নুরুল আলম, বড়ঘোপ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান টিটু, যুবলীগ নেতা এড শেখ কামাল, শেখ শহিদুল ইসলাম লালা, মিজবাহ উদ্দিন, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আবু জাফর ছিদ্দিকী, যুগ্ম আহবায সেলিম উদ্দিন লিটন, আরিফুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খোরশেদ আলম, মিজবাহুর রহমান তুহিনসহ উপজেলার বিভিন্ন পেশাজীবি,শিক্ষার্থী,সাংবাদিক, সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সকাল ১১ার দিকে পুলিশ,আনসার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষে,সংগঠন সম্মিলিত ভাবে বর্নাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে সদরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান,নাটক, আতসবাজি আলোক উজ্জল প্রভৃতির আয়োজনের মধ্যে দিয়ে শতবর্ষ পুর্তি অনুষ্ঠানটি সফল ভাবে সম্পন্ন হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top