সেনা সদস্য আব্দু ছালামের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে বাসটার্মিনালে এলাকাবাসীর মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

COXS-BAZAR-MANOB-BONDON-PIC-311217-e1514782652975.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
কক্সবাজার সদর উপজেলা ঝিলংজা দক্ষিন ডিককুল শিশু শিক্ষা নিকেতন ও দক্ষিন ডিককুল বায়তুল লতিফ জামে মসজিদের সভাপতি সাবেক সেনা সদস্য মো: আবদু ছালামের উপর হামলাকারী সাইফুল গংদের গ্রেফতারের দাবীতে ৩১ ডিসেম্বও রবিবার বিকাল ৩ ঘটিকার সময়শহরের বাসটার্মিনালে দক্ষিণ ডিককুল এলাকার হাজার হাজার নারী পুরুষমানব বন্ধন উত্তর এক প্রতিবাদ সমাবেশ করে।১৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মো:জাফর আলমের সভাপতিত্বে ও মোঃ ইলিয়াসের সঞ্চালনায়আয়োজিত উক্ত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মো:নজিবুল ইসলাম। উক্ত প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, পৌর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আছিফ মওলা,সাধারণ সম্পাদক উজ্জ্বল কর,দৈনিক আপন কন্ঠের সম্পাদক রুহুল আমিন সিকদার,জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন সম্পাদক সেলিম চৌং, দক্ষিণ ডিক্কুল বায়তুল লতিফ জামে মসজিদের সাধারণ সম্পাদক আব্দু শুক্কুর, বাস টার্মিনাল ছাত্রলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম সোহেল, জেলা হোটেল শ্রমিকলীগের সভাপতি রুহুল কাদের মানিকসহ এলাকার গন্যমান্য বক্তিবর্গরা। প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথি নজিবুল ইসলাম আগামী ৩ দিনের মধ্যে সাবেক সেনা সদস্য আব্দু ছালামের উপর হামলাকারী অবৈধ অস্ত্রধারীদের নেতা সাইফুল সহ তার সন্ত্রাসী বাহিনীদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান। উক্ত মানব বন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে দক্ষিণ ডিককুল এলাকার হাজার হাজার নারী পুরুষ মিছিল সহকারে অংশ গ্রহন করেন।
এদিকে এই ঘটনায় আহত আবদুছালমের পিতা জাফর আলম বাদি হয়ে সাইফুল ইসলামকে প্রধাণ করে ৯ জনকে এজাহারভুক্ত ও অজ্ঞাত ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে গতকাল কক্সবাজার সদর মড়েল থানায় একটি মামলা (মামলা নং-৪৫ তাং-৩১/১২/২০১৭ ইং) দায়ের করেন।
উল্লেখ্য, ৩০ ডিসেম্বর শনিবার দুপুরে ঝিলংজা সদর উপজেলার দক্ষিন ডিককুল শিশু শিক্ষা নিকেতন স্কুলের সরকারী ভাবে বরাদ্ধকৃত প্রাইমারী বইয়ের জন্য শহরের পশ্চিম লাহার পাড়া প্রাইমারী স্কুলে গেলে সেখানে লার পাড়ার চিহ্নিত ইয়াবা গড ফাদার সাইফুলের নেতৃর্ত্ব একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী ঝিলংজা সদর উপজেলা ডিককুল শিশু শিক্ষা নিকেতন ও দক্ষিন ডিককুল বায়তুল লতিফ জামে মসজিদের সভাপতি সাবেক সেনা সদস্য মো: আবদুছালামকে অস্ত্রের মুথে জিম্মী করে লারপাড়া পাহাড়ে নিয়ে গিয়ে গাছের সাথে বেধেঁ লোহার রড় ও হাতুড়ি দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর ও আঘাত করলে সে অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুঠিয়ে পড়ে। পরে এলাবাসি খবর পেয়ে দক্ষিণ লারপাড়া পাহাড় থেকে রক্তাক্ত ও গুরুতর আহত অবস্থায় সাবেক সেনা সদস্য মো: আবদুছালামকে উদ্ধার করে প্রথমে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে নিয়ে আসলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: নোমান হোসেন প্রিন্স তাকে চিকিৎসার জন্য দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য নির্দেশ দিলে এলাকাবাসী তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন। বর্তমানে আহত আবদুছালাম সদর হাসপাতালের ৫ম তলায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
এব্যাপারে কক্সবাজার সদর মড়েল থানার অফিসার ইনচার্জ রনজিত কুমার বড়–য়া মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,অভিলম্বে ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে বলে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top