চট্টগ্রাম-কক্সবাজার সড়ক পথে ইয়াবা পাচার থামছে না আবারও ইয়াবার চালান আটক করেছে চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ

images-2.jpg

চকরিয়া অফিস :
চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক দিয়ে ইয়াবা পাচার থামছে না। পুলিশের অভিযানের মাঝেও প্রতিদিনই বিপুল পরিমানের ইয়াবা পাচার হচ্ছে এই রুট দিয়ে। মাঝে মধ্যে পুলিশের অভিযানে কিছু ইয়াবা বহনকারী ধরা পড়লেও ইয়াবা পাচারের সাথে জড়িত চকরিয়ার রাঘলবোয়ালরা ধরা ছোয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়া উপজেলার বানিয়ারছড়াস্থ আমতলী এলাকায় চকরিয়ায় ১৮ হাজার পিস ইয়াবা বড়িসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশ। জব্দকৃত ইয়াবা বড়ির আনুমানিক মূল্য ৫৪ লাখ টাকা। এসময় ইয়াবা পরিবহণে ব্যবহৃত একটি পিকআপ (ঢাকা মেট্টো ন-১৮-৩১২৬) জব্দ করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-যশোর জেলার কোতোয়ালী থানা এলাকার হিরু মোল্লার ছেলে মো. সবুজ মোল্লা (৩৫) ও সাতক্ষীরার কলারোয়া এলাকার মৃত আবদুল হামিদের ছেলে মো. হোসেন (৩০)। চিরিংগা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির আইসি নুরে আলম বলেন, গোপনে খবর আসে দুই মাদক ব্যবসায়ী একটি পিকআপে করে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা বড়ির চালান নিয়ে ঢাকা যাচ্ছে। এ সংবাদ পেয়ে সকালে একদল পুলিশ নিয়ে সড়কে চেকপোস্ট বসাই। এসময় কক্সবাজার থেকে একটি পিকআপ গাড়িটি বানিয়ারছড়াস্থ আমতলী এলাকায় পৌছলে গাড়িটির গতিরোধ করি। গাড়িটি থামার সাথে সাথে গাড়িতে থাকা দুই যুবককে আটকে রেখে তল্লাশি চালানো হয়। পরে গাড়ির বডির নিচ থেকে পলিথিনে মোড়ানো বেশ কয়েকটি প্যাকেট উদ্ধার করি। প্যাকেটগুলো খুলে দেখা যায় ইয়াবা বড়ি। এতে ১৮ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়। যার আনুমানিক মূল্য ৫৪ লাখ টাকা। তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় চকরিয়া থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এলাকাবাসির প্রশ্ন চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ি মাঝে মধ্যে অভিযান চালিয়ে ইয়ার চালান ধরতে পারলেও রহস্যজনক কারণে একই রুটে অন্যান্য পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ ও থানার পুলিশ ইয়াবার বিরুদ্ধে অভিযানের খবর তেমন দেখা যাচ্ছে না কেন? তাছাড়াও ইয়াবা পাচারের সাথে জড়িত স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা বরাবরই ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top