বিয়ের দাবিতে টাওয়ারে যুবক!

Tower.jpg

কক্সবাজার ডেস্ক॥
প্রতিবেশি প্রেমিকার সঙ্গে বিয়েতে মত দেননি বাবাসহ পরিবারের সদস্যরা। তাই উচু একটি মোবাইল টাওয়ারে উঠে পড়লো ছেলে। দুশ্চিন্তায় নিচ থেকে চিৎকার-চেচামেচি। আর ওই যুবকের কাণ্ডে হতবাক ভারতের মালদহের কালিয়াচকের দরিয়াপুরবাসী।

জানা যায়, ২৬ বছর বয়স ছেলে মামুদ শেখের বিয়ে দিতে রাজি হননি বাবা। তাতেই অভিমান করেন তিনি। ফলে বিয়ের দাবিতে সারাদিন একটি মোবাইল টাওয়ারের চূড়ায় উঠে বসে থাকেন তিনি। আর নিচে কৌতূহলী হাজারো মানুষের ভিড়। উপরে তাকিয়ে থাকেন সবাই। এমনকী মামুদের বাবা আবদুল শেখও। কিন্তু বাবার মনে কোনো উৎকণ্ঠাই ছিল না।

বিড়বিড় করে ছেলের উদ্দেশে আবদুল সাহেব ঘুরেফিরে একটাই কথা বলছিলেন, ‘তুই বিয়ে করে টাওয়ারেই বসে থাকবি। আমি বাড়িতে তুলব না।’

পুলিশ ও দমকলকর্মীরা পৌঁছেও ওই যুবককে টাওয়ার থেকে নামাতে পারেননি। পরে মই বেয়ে টাওয়ারে কেউ ওঠার চেষ্টা করলেই মরণঝাঁপের হুমকি দেন মামুদ। বরফ গলেনি দীর্ঘ ১০ ঘণ্টা পরেও। নিচে থাকা মানুষজন তাকে বাগে আনতে না পারলেও পাখির ধাক্কায় মামুদকে রণে ভঙ্গ দিতে হয়। সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ ঝাঁকে ঝাঁকে পাখির খোঁচা খেয়ে একটু একটু করে নেমে আসতে বাধ্য হন ওই যুবক। পরে পাড়ার বন্ধুরা কিছুটা উপরে উঠে তাঁকে দড়ি দিয়ে বেঁধে নিচে নামান।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top