মহামনীষী স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৬ তম জন্ম বার্ষিকী উদ্যাপন

scan-12-01-18.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
বিগত ১২ই জানুয়ারি, ২০১৮ইং বিবেকানন্দ বিদ্যা নিকেতনের উদ্যোগে বিদ্যা নিকেতন প্রাঙ্গনে বিশ্ববিখ্যাত মনীষী ও প্রাচ্যের নবজাগরণের পুরোধা বিশ্ব জাতির বিবেক স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৬তম জন্মদিন উদ্যাপিত হয়। বিদ্যা নিকেতনের সহকারী শিক্ষক শ্রী অনুপম দাশ এর উপস্থাপনায় “স্বামী বিবেকানন্দ ও বিশ্বমানবতাবাদ” শীর্ষক আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম, কক্সবাজারের সহ-সভাপতি শ্রী দিলীপ দাশ। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শ্রীমৎ স্বামী জ্ঞান প্রকাশানন্দ মহারাজ, অধ্যক্ষ, রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন, যশোর, বিশেষ অতিথি ছিলেন রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম, কক্সবাজার-এর প্রাক্তন সহ-সভাপতি এডভোকেট শিবুলাল দেবদাস। উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম, কক্সবাজার-এর পরিচালনা পরিষদের সদস্য মানস দাশ গুপ্ত, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ অধ্যাপক গোপাল কৃষ্ণ দাশ, ডাঃ অনিন্দ্য দাশ গুপ্ত। বিদ্যা নিকেতনের শিক্ষার্থী ইয়াছির আরাফাত ইমন ও জিতু পাল এর পবিত্র কুরআন ও গীতা পাঠের পর বিদ্যা নিকেতনের সঙ্গীত শিক্ষিকা মহুয়া ঘোষ ও শিক্ষার্থীদের যৌথ পরিবেশনায় উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশিত হয়। বিদ্যা নিকেতনের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা শ্রীমতি সুচিতা পাল-এর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে আলোচনা সভা শুরু হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যশোর রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন-এর অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী জ্ঞান প্রকাশানন্দ মহারাজ। তিনি বলেন, সমুদ্র খুঁজতে হলে আগে সমুদ্রের পাড়ে যেতে হবে। যিনি সত্যকে ধরে রেখেছেন তিনি ভগবানের কোলে শুয়ে আছেন। তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশের জন্য লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধূলা ও বিনোদন আবশ্যক। তবে লেখাপড়াকেই প্রাধান্য দিতে হবে। তিনি বলেন- এই পৃথিবীতে সৃষ্টিকর্তা যুগে যুগে যেসব মহামানব পাঠিয়েছেন তারা ধর্মের গন্ডি পেরিয়ে মানব সেভায় ব্রতী ছিলেন। তাদের মধ্যে স্বামী বিবেকানন্দ একজন। তাঁর নির্দেশিত পথ আমাদের চলার পথের পাথেয়। স্বামী বিবেকানন্দের আদর্শকে গ্রহণ করলে পৃথিবীতে শান্তি আসবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এডভোকেট শিবুলাল দেবদাস বলেন, জগতের উন্নয়নে মানব সেবার কথা প্রথম চিন্তা করেছেন স্বামী বিবেকানন্দ। প্রতিযোগিতায় প্রথম হওয়া অপেক্ষা অংশগ্রহণই অধিক গুরুত্বের।
সভাপতির বক্তব্যে দিলীপ দাশ বলেন, “বাংলাদেশ সারা বিশ্বের জন্য একটি বিস্ময়। কেবল মাত্র পুঁথিগত বিদ্যা ব্যক্তি-জীবনে পরিপূর্ণতা প্রদান করতে অক্ষম। সাহিত্য-সংস্কৃতি ও খেলাধূলা এবং গ্রন্থ একে অপরের পরিপূরক।” সম্মানিত সভাপতি তাঁর মূল্যবান বক্তব্যে উল্লেখ করেন- পশ্চাৎপদ ঘোনারপাড়া এলাকার অধিবাসীদের মানোন্নয়নে বিবেকানন্দ বিদ্যা নিকেতন-এর অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে। বিগত ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইংরেজি প্রকাশিত পিএসসি পরীক্ষার ফলাফলে বিবেকানন্দ বিদ্যা নিকেতনের ৯২ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৪৮ জন জিপিএ-৫ (এ+) এবং ৩৫ জন জিপিএ-৪ (এ) সহ শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে। বিগত ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৭ ইংরেজি অনুষ্ঠিত কক্সবাজার সরকারি বালক ও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষায় ৪৬ জন শিক্ষার্থী মেধা তালিকায় উত্তীর্ণ হয়েছে যার মধ্যে বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রাতঃ শাখায় প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান সহ উভয় বিদ্যালয়ে শীর্ষ দশের মধ্যে অত্র বিদ্যা নিকেতনের ৯ জন শিক্ষার্থী স্থান লাভ করতে সক্ষম হয়েছে। তাই এমন কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফলের জন্য শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং সংশ্লিষ্ঠ সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি স্বামীজীর মহান অমিয় বাণী- এই জীবন ক্ষণভঙ্গুর; জগতের ধন, মান, ঐশ্বর্য্য – এ সকলই ক্ষণস্থায়ী, তাহারাই যথার্থ জীবিত, যাহারা অপরের জন্য জীবন ধারণ করে। অবশিষ্ট ব্যক্তিগণ বাঁচিয়া নাই, মরিয়া আছে।” থেকে শিক্ষা গ্রহণপূর্বক জগতের নিরাপদ ও সুন্দর সভ্যতার জন্য মানুষের অন্তর্জগতের উন্নতি ও পূর্ণত্বের প্রকাশ ঘটানোর আহ্বান জানান এবং “স্বামী বিবেকানন্দ ও বিশ্বমানবতা” শীর্ষক বক্তব্য প্রতিযোগিতায় প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিদ্যা নিকেতনের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী ইয়াছির আরাফাত ইমন, বিদ্যা নিকেতন পরিচালনা পরিষদের সদস্য অধ্যাপক গোপাল কৃষ্ণ দাশ, বিশেষ অতিথি এডভোকেট শিবু লাল দেবদাস। আরও বক্তব্য রাখেন ডাঃ অনিন্দ্য দাশ গুপ্ত, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ অধ্যাপক গোপাল কৃষ্ণ দাশ, রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম, কক্সবাজার-এর পরিচালনা পরিষদের সদস্য শ্রী মানস দাশ গুপ্ত। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন বিদ্যা নিকেতনের সহকারী শিক্ষক শ্রী অনুপম দাশ।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top