উখিয়ায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড চার বসত বাড়ি ভষ্মীভূত

news-ukhiya-Faruk-1.jpg

উখিয়া প্রতিনিধি :
উখিয়ার কোটবাজার স্টেশন সংলগ্ন সাতবাড়িয়া পাড়ায় এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শনিবার ভোর ৫টার দিকে এ রহস্য জনক অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত ঘটে বলে স্থানীয় বিভিন্ন মহল সন্দেহ করছে। ঘটনাটি স্পর্শকাতর ভেতে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন গুরুত্ব সহকারে তদন্ত শুরু করে দিয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় কেউ হতাহত না হলেও কোটি টাকার অধিক ক্ষতি হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।
জানা গেছে গতকাল শনিবার ভোরে উখিয়ার রতœাপালং ইউনিয়নের কোটবাজার ষ্টেশন সংলগ্ন সাতবাড়িয়া বড়ুয়া পাড়ায় মৃত প্রিয় দর্শী বড়ুয়ার পুত্র আশুতুষ বড়ুয়া ও পরিতোষ বড়ুয়া এবং মৃত লোকনাথ বড়ুয়ার পুত্র রুপন বড়ুয়া ও সুবন বড়ুয়ার বসত বাড়িতে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। কিছু বুঝে উঠার পুর্বেই সব কিছু আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে বাড়িতে থাকা নগদ বিপুল পরিমাণের টাকা, স্বর্ণালংকার, সাতটি পাসপোর্ট আটটি পরিচয়পত্র ছেলে মেয়েদের বিভিন্ন পরীক্ষার সনদ, জায়গাজমির দলিল, আসবাবপত্র সহ সব কিছু পুড়ে যায়। এতে অন্তত কোটি টাকা বেশী ক্ষতিসাধিত হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কর্তা আশোতোষ বড়ুয়া জানান। খবর পেয়ে উখিয়া ফায়ার সার্ভিসের দল ঘটনা স্থলে যাওয়ার পূর্বে সব কিছু শেষ হয়ে যায়। কিছুই বাড়ি থেকে বের করা সম্ভব হয়নি।
এ ঘটনাকে এলাকাবাসী ও সচেতন মহল একটি পরিকল্পিত শত্রুতা মূলক ঘটনা বলে ধারনা করলেও ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার নিজেদের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে মুখ খুলতে রাজি হয়নি। ঘটনার পর পর উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরী, কক্সবাজার জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরুজুল হক টুটুল, উখিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চাইলাউ মার্মা ও উখিয়া থানার ওসি মোঃ আবুল খায়েরসহ বিভিন্ন স্থরের সরকারী কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার লোকজনদের সাথে কথা বলেন। সরকারের পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিবার পিছু দুই বান্ডিল করে ঢেউটিন, শীতবস্ত্র, নগদ টাকা ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাপড়চোপড় ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনের মাঝে বিতরণ করেন। উখিয়া থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের অগ্নিকান্ডের ঘটনাটি তদন্ত চলছে। এ ব্যাপারে পুলিশের পিআইবিকে তদন্তের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top