মহেশখালীর দক্ষিণ সাইরার ডেইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভূমিকম্প : প্রস্তুতি সুনামি’র

Soname.doc-1.jpg

????????????????????????????????????

কক্সবাজার রিপোর্ট :
কক্সবাজারের মহেশখালী’র দক্ষিন সাইরার ডেইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রতিদিনের মত মঙ্গলবারেও যথা নিয়মে ক্লাস চলছিল। ক্লাস চলাকালিন অবস্থায় হঠাৎ চারদিকে কম্পন শুরু হয়। ছাদের প্লাষ্টার ভেঙ্গে পড়ার শব্দ শুরু যায়। এতে শিক্ষার্থী আর শিক্ষকেরা সবাই আতংকিত হয়ে পড়ে। যে যার মত দিক-বেদিক ছুটাছুটি করতে থাকে। ঝুকিপূর্ণ অবস্থায় ছিল ছাদের নীচে থাকা শিক্ষার্থীরা। এরই মধ্যে এক শিক্ষক মেগাফোন নিয়ে বলতে থাকেন। ‘তোমরা সবাই তাড়াতাড়ি টেবিল বা বেঞ্চের নীচে চলে যাও অথবা মাটিতে বসে বড়। কেউ দাঁড়িয়ে থাকবেনা। জানালার কাছ থেকে সবাই দূরে থাক। তাড়াতাড়ি সবাই মাথায় হাত রেখে মাথা নিচু করে উপুড় হয়ে বসে পড়। যাদের ব্যাগ আছে তারা ঘাড়ের উপর ব্যাগ ধরে রাখ। সবাই ঘাড়ে হাত রেখে মাথা নিচু করে আসবাবপত্র শক্ত করে ধরে রাখ এবং কম্পন থেকে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা কর’। এসময় ছাত্র-ছাত্রীরা ওই শিক্ষকের কথা অনুযায়ী নিরাপত্তার জন্য এসব কাজ করে। যখন পরিবেশ শান্ত হয়ে যায়। তখন ঘন্টা বাজিয়ে সকল শিক্ষার্থীকে স্কুলের মাঠে নিয়ে আসা হয়। খুব বেশি ক্ষয়ক্ষতি না হলেও প্রতিবন্ধি এক ছাত্রসহ ২ জন অল্প আহত হয়। আহতদের চিকিৎসা কেন্দ্রে নেওয়া হয়। এরই মধ্যে প্রধান শিক্ষক খুব বিচলিত হয়ে মেগাফোনে সবাইকে জানায়, তার মোবাইলে সুনামির সর্তকবার্তা জারির বার্তা এসেছে।
আর এই তথ্যটি বিভিন্ন টেলিভিশনের নিউজে ঠিকার হিসেবে চলছিল। তিনি মেগাফোনে জানান, ‘যে কোন সময় সুনামি চলে আসতে পারে। তোমরা সকলে সারিবদ্ধভাবে দ্রুত হেঁটে নিরাপদ দূরত্বে চলে যাও। যাওয়ার সময় চিৎকার করো না। সাথে তোমাদের প্রয়োজনীয় জিনিস-পত্র নিয়ে যাও’।
এ সময় তিনি সুনামি সর্ম্পকে ধারনা দেন, তিনি বলেন সমুদ্রে ভূমিকম্পের কারনে সুনামি হয়ে থাকে। সুনামি একটি বা দুইটি ঢেউ নয় বরং একের পর এক ঢেউ অনেকক্ষন ধরে চলতে পারে। আর এই ঢেউ গুলো প্রচন্ড বেগে আঘাত হানতে পারে। আর এসব ঢেউ অনেক বড় বড় হতে পারে। তা কত বড় হতে পারে আর কত দ্রুত হতে পারে তা ধারনা করা সহজ নয়। শিক্ষকের কথা মত সকল শিক্ষার্থী নিরাপদ স্থানে চলে যায়।
এই ঘটনাটি সত্য না। এটি হল সুনামি বিষয়ক সচেতনতামূলক একটি মহড়া। জাতিসংঘ উন্নয়ন সংস্থা’র (ইউএনডিপি) উদ্যোগে সুনামি সহ নানা প্রাকৃতিক দূযোর্গ মোকাবেলায় উপকূলবর্তী স্কুল গুলোতে এই মহড়া চলছে। তারা স্কুল শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে এই সচেতনতামূলক প্রচারনা চালাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার সকাল ১১ টা থেকে দুপুর পর্যন্ত এই সচেতনতামূলক মহড়া চলে মহেশখালী’র দক্ষিন সাইরার ডেইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।
আর এই মহড়া থেকে শুরু করে সার্বিক পরিচালনা করেন, ইউএনডিপি’র ন্যাশনাল কনসালট্যান্ট, টেকনিক্যাল অফিসার সমীর সমদ্দার ও সানাউল ইসলা। পরে এই বিষয়ের উপর আলোচনা সভা চলে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহেশখালী উপজেলা শিক্ষা অফিসার তাজুরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন, মাতারবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাষ্টার মোহাম্মদ উল্লাহ, ঘড়িভাংঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শহীদুল আলম, মধ্য খুরুশকুল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শাহ আলম, দক্ষিণ সাইরার ডেইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল মোনাফ, স্কুল ব্যবস্তাপনা কমিটির সভাপতি মৌলবি আহম্মদ হোসেন, মহেশখালী কুতুবজোমের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাবিবুল্লাহ সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ।

আপনার মন্তব্য লিখুন...

Top