প্রাণে বেঁচে গেল অসহায় মেয়েটি

Priya.jpg

কুতুবদিয়া প্রতিনিধি :

প্রতারক প্রেমিকের ছুরির নীচ থেকে প্রাণে বেঁচে গেল প্রিয়া (১৯) নামের অসহায় মেয়েটি। চকরিয়া উপজেলার হারবাং ষ্টেশন পাড়ার সাধন মল্লিকের মেয়ে সে। মা মরা প্রিয়া বেঁেচ থাকার তাগিদে চট্টগ্রামে একটি গার্মেন্টসে চাকুরি করা অবস্থায় বাশঁখালীর মৌলভীর দোকান এলাকার রশিদ মেম্বারের নাতী হাছানের সাথে পরিচয় সূত্রে প্রেম। ফিসিং শ্রমিক হাছান তাকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে গত ৪দিন আগে বাশঁখালীর বোটঘাট সখিনার কলোনীতে একটি ভাড়া বাসায় তোলে। সেখানে হাছানের মা এলে বিষয়টি জানাজানি হয় তার আগের স্ত্রী –সন্তান রয়েছে। এ নিয়ে তর্ক বাধে উভয়ের মাঝে। এক পর্যায়ে প্রিয়াকে হাছান নানার বাড়ি বেড়ানোর কথা বলে দু‘বন্ধু সহ কুতুবদিয়ায় বায়ু বিদ্যুৎ এলাকায় নিয়ে আসে শনিবার (১৭ মার্চ) রাতে। সেখানে ব্লকের ধারে প্রিয়ার উপর ছুরি দিয়ে হামলা চালায় হাছান। দু‘জনের মধ্যে ধস্তাদস্তির মাঝে ছুরি ছিঁটকে গেলে পাথর এনে আঘাত করতে গেলে ফাঁক পেয়ে প্রিয়া প্রাণ নিয়ে পালিয়ে পার্শ্ববর্তী নয়াপাড়ার রাস্তায় অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়।
কান্না শুনে ওই পাড়ার মৃত আব্দুল মোতালেবের স্ত্রী মিনুয়ারা এগিয়ে এসে প্রিয়াকে উদ্ধার করে রাত ১০ টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি করায় । এ সময় থানার ওসি মোহাম্মদ দিদারুল ফেরদাউস খবর পেয়ে হাসপাতালে আসেন। শনিবার সকালে কিছুটা সুস্থ হয়ে প্রতিবেদককে ঘটনার বর্ণনা দেন। হাসপতালের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. জয়নুল আবেদীন বলেন, মেয়েটির মাথা ও মুখমন্ডলে আঘাতের চিকিৎসা চলছে। সুস্থ হলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

Top