আজ বাংলা চ্যানেল পাড়ি দেবেন ২ নারীসহ ২৮ সাঁতারু

jashim-mahmud-18-03-2018.docx_n.jpg

জসিম মাহমুদ :
প্রথম বারের মতো কোনো দেশিয় দুজন নারী সাঁতারু বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিতে যাচ্ছেন। টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ থেকে সেন্ট মার্টিন পর্যন্ত ১৬ দশমিক ১ কিলোমিটার দূরত্বের বঙ্গোপসাগরের এ স্রোত ধারাটির নাম ‘বাংলা চ্যানেল’। প্রতিবারের মতো এবার ১৩তম সাঁতার অনুষ্টিত হলেও এবার একসঙ্গে ২৮জন দেশিয় সাঁতারু অংশ নিচ্ছেন।
আজ সোমবার সকাল নয়টায় গত ১২ বছরের ১২ বার সফল সাঁতারু লিপটন সরকার, মনিরুজ্জামান ছয়বার, ফজলুল কবির সিনা পাঁচবার, সামসুজ্জামান আরাফাত তিনবার এবং শাহাদত বাশার একবার এই চ্যানেলটি পাড়ি দিয়েছেন।
এছাড়া তাদের সঙ্গে প্রথম বারের মতো যোগ দিচ্ছেন ঢাকা, বগুড়া ও রংপুরের আরও ২৩জন। এরমধ্যে দুজন নারী পূর্ণিমা খাতুন ও মোছাম্মৎ মিতু আখতার রয়েছেন। পূর্ণিমা খাতুন ও মিতু আখতার বলেন, জীবনের প্রথম বার দেশিয় নারী হিসেবে এ বাংলা চ্যানেলটি সাঁতার দেওয়া হবে। এতে করে দেশের অপর সাঁতারুরা আগামীতে অনুপ্রেরণা যোগাবে। ’
এরআগে গত ২৮ জানুয়ারি ‘বাংলা চ্যানেল’ পাড়ি দিলেন যুক্তরাজ্যের নারী বেকি হার্সব্রো। তিনি অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) সাংবাদিক ও একজন সাঁতারের প্রশিক্ষক।
ষড়জ অ্যাডভেঞ্চার ও এক্সট্রিম বাংলার উদ্যোগে দূরপাল্লার আজকের এ সাঁতার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রয়াত কাজী হামিদুল হকের স্মরনে এ সাঁতার প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান খান কবির ও বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ এডিবল অয়েলের সিনিয়র ব্র্যান্ড এক্সিকিউটিভ আবদুল্লাহ আল মুহিন।
ফরচুন এডিবল অয়েলের টাইটেল ¯পন্সরে সঙ্গে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, প্রিয় প্রাঙ্গণ ও অফরোড বাংলাদেশ। সিকিরিটি পার্টনার এলিট ফোর্স। যাবতীয় উদ্ধার অভিযান করবে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড। বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড এই আয়োজনের সহযোগি আয়োজক। বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন, ষড়জ, উডপেকার এই আয়োজনের পার্টনার।
২০০৬ সালের ১৪ জানুয়ারি শাহপরীর দ্বীপ-সেন্ট মার্টিন রুটে ‘বাংলা চ্যানেলের যাত্রা শুরু হয়। মূলতঃ এটির স্বপ্নদ্রষ্টা ছিলেন প্রয়াত কাজী হামিদুল হক। যিনি নিজেও একজন বিখ্যাত আন্ডারওয়াটার ফটোগ্রাফার ও স্কুবা ডাইভার এবং নানাবিধ অ্যাডভেঞ্চারের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তাঁর তত্ত্বাবধানেই প্রথম বারের মতো ফজলুল কবির সিনা, লিপটন সরকার এবং সালমান সাঈদ ‘বাংলা চ্যানেল’ পাড়ি দেন। এরপর থেকে প্রতিবছরই এটির আয়োজন করা হচ্ছে।
সাঁতারু ও দলনেতা লিপটন সরকার বলেন, পযর্টন শিল্প বিকাশের পাশাপাশি পযর্টকদের এ চ্যানেলটি পরিচিত করে তুলতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

Top