ধলঘাটা অর্থনৈতিক অঞ্চল কতৃক অধিগ্রহণকৃত জমির ন্যায্য মূল্যের দাবিতে জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করলেন ধলঘাটার চেয়ারম্যান

moheskhail-pic-11.04.18.jpg

বার্তা পরিবেশক :

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল মহেশখালী উপজেলার দুর্গম ইউনিয়ন ধলঘাটা এলাকার ভারত ঘোনার অধিকাংশ খাস জমি ছাড়াও প্রায় ৪৫০ একর জমি অধিগ্রহন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জমির মালিকদের ৭ ধারা নোটিশ ও প্রদান করেছেন।
কিন্তু শুরুতেই ধলঘাটাবাসীর পক্ষে চেয়ারম্যান কামরুল হাসান জমির ন্যায্য মূল্যের দাবীতে সোচ্চার থাকায় এখনো পর্যন্ত কোন মূল্য বেজা কতৃপক্ষ ঘোষনা করেন নি। এদিকে ৭ ধারা নোটিশ পাওয়ার পর ধলঘাট মানুষের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে কেন ন্যায্য মূল্য ঘোষনা করা হয়নি এই মর্মে। গতকাল বুধবার সকাল ১১ টার সময় কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের সাথে ধলঘাট চেয়ারম্যান কামরুল হাসান সাক্ষাত করে এলাকাবাসীর পক্ষে আবারো আবেদনের মাধ্যমে জানান দিলেন যে, জমির ন্যায্য মূল্য দিতে হবে। এসময় চেয়ারম্যান জেলা প্রশাসক’কে বলেন-আমরা নাম মাত্র মৌজা মূল্যে জমি ছেড়ে দিতে চাইনা। বর্তমান ক্রয় বিক্রয় অর্থাৎ যোগোপযোগী মূল্যের উপর ভিত্তি করে জমির ন্যায্য মূল্য প্রদান করতে হবে অন্যথায় জনগণেল চেয়ারম্যান হয়ে আমি একা ছাড় পত্রে সই করতে পারিনা । এবং দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত ছাড়পত্র ও দেওয়া হবেনা। মনোযোগসহকারে সব দাবি দাওয়া শুনে জেলা প্রশাসক চেয়ারম্যান কামরুল হাসানকে আশ্বাস প্রদান করেন যে, যথাযত জমির ন্যায্য মূল্য সহ সব ধরনের সহযোগিতা প্রদান করার জন্য তিনি সরকারের উপর মহলের প্রতি আবেদন করবেন। উক্ত আবেদন প্রদানের সময় কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড.সিরাজুল মোস্তাফা উপস্থিত ছিলেন এবং তিনি নিজেও জোরালো দাবী জানান ধলঘাটাবাসীর পক্ষে। এসময় উপস্থিত ছিলেন অধিগ্রহণকৃত জমির মালিক ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিগন।

Top