মহেশখালীতে অস্ত্র ঠেকিয়ে কর্মকর্তাকে হুমকি ঠিকাদার গ্রেফতার

download-1-6.jpg

মহেশখালী অফিস :

দিনদুপুরে সরকারি অফিসে ঢুকে কর্মকর্তাকে গুলি করে হত্যার হুমকী দেওয়ার অভিযোগে মহেশখালীতে গ্রেফতার হয়েছে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য ঠিকাদার গিয়াস উদ্দীন আযম। এনিয়ে দ্রুত বিচার আইনে মামলা হয়েছে বলে জানা গেছে।
বুধবার দুপুরে মহেশখালী উপজেলা প্রকৌশল অফিসে ঢুকে প্রকাশ্যে পিস্তল বের করে উপজেলা প্রকৌশলী ছৈয়দ জকির হোসেনকে মাথায় অস্ত্র টেকিয়ে হত্যার হুমকী দেয় এই যুবলীগ নেতা।
পরে বিষয়টি প্রায় গোপন রেখে প্রশাসনের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করে বুধবার রাত ৮ টার দিকে প্রকৌশল অফিসের পাশ থেকেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে প্রদর্শন করা পিস্তলটি অবৈধ। এটি উদ্ধারে অভিযান চলছে।
উপজেলা প্রকৌশলী ছৈয়দ জাকির হোছাইন অভিযোগ করেছেন, যুবলীগ নেতা গিয়াস উদ্দীন আজম একজন ঠিকাদার। প্রকল্পের কাজের টাকা নিয়ে মনোমালিন্যকে কেন্দ্র করে গিয়াস উদ্দীন আজম প্রকাশ্যে অবৈধ অস্ত্র নিয়ে উপজেলা প্রকৌশলী ছৈয়দ জাকির হোছাইনের কার্যালয়ে ঢুকেন। ঢুকেই তিনি কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দেন। হুমকি দিয়ে তিনি ওই স্থান ত্যাগ করেন। তবে বিকালে দিকে উপজেলা পরিষদ কম্পাউন্ডে এসে স্বাভাবিক ভাবে বিচরণ করেন। সেখান থেকেই তাকে আটক করে পুলিশ।
মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি একেএম শফিকুল আলম চৌধুরী জানান এই ঘটনায় প্রকৌশলী সৈয়দ জাকির হোসেন বাদী হয়ে দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করেছে। মূলতঃ ঠিকাদার হিসেবে কাজ করেন যুবলীগ নেতা গিয়াস। কাজের মান খারাপ হওয়ায় তাকে সম্প্রতি কারণদর্শনো নোটিশ দেন এলজিইডি অফিস। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দুপুরে এই ঘটনা ঘটনো হয় জানান ওসি।

Top