দেশ উন্নয়নের ক্ষেত্রে মোবাইল ফোনের ভূমিকাও গুরুত্বপূর্ণ- আশেক উল্লাহ রফিক এমপি

Coxs-Sheba-telecom-Pic-24.03.2018.jpg

কক্সবাজার রিপোর্ট :
মহেশখালী-কুতুবদীয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক বলেছেন, এগিয়ে যাচ্ছে দেশ উন্নয়নের ¯্রােতে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশও ক্রমাগত সাফল্যের সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশ উন্নয়নের ক্ষেত্রে মোবাইল ফোনের ভুমিকাও গুরুত্বপূর্ণ। আর তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় সহায়ক শক্তি হিসাবে কাজ করছে সেবা টেলিকমের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো। আজকের এই ১০ বছর পূর্তি উৎসব এরই প্রমান বহন করে।
শুক্রবার (২৩ মার্চ) কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্র মিলনায়তনে সেবা টেলিকমের ১০ বছর পূর্তি উৎসব,সেলস পার্টনার ও সূধী সম্মিলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিকালে নান্দনিক শিল্প সমৃদ্ধ বিশালাকৃতির কেক কেটে উৎসবের উদ্বোধন করেন,কক্সবাজার পুলিশ সুপার ড. মো. ইকবাল হোসেন।
এ সময় পুলিশ সুপার বলেন, বাংলাদেশ স্বল্প উন্নত অবস্থান থেকে এখন উন্নয়নশীল দেশের কাতারে। এ সাফল্যের পেছনে মোবাইল ফোনের অবদান অনস্বীকার্য। আর মোবাইলের প্রযুক্তিগত উন্নয়ন, প্রচার প্রসারে সেবা টেলিকমের অবদানও বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।
এ সময় অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নোমান হোসেন প্রিন্স বলেন,অনেক অসাধু ব্যাসায়ী সরকারকে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধ মোবাইল ফোন সেট বাজারজাত করেন। এতে সরকার আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এসব ব্যাপারে ব্যবসায়িদের সচেতন থাকার আহবান জানান তিনি। প্রয়োজনে এসব অসাধু ব্যাবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনার কথাও তিনি বলেন।
সেবা টেলিকমের সত্বাধিকারী মো. দেলোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নোমান হোসেন প্রিন্স,সহকারী পুলিশ সুপার সাইফুল হাসান,বিশিষ্ট আইনজীবি আবুল কালাম আজাদ,বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অ্যাড.আয়াছুর রহমান,কক্সবাজার চেম্বার এন্ড কর্মাসের সভাপতি আবু মোর্শেদ চৌধুরী খোকা ও জেলা আওয়ামীলীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অ্যাড. তাপস রক্ষিত।
এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিশ্বমানের বিশ্বখ্যাত মোবাইল সেট কোম্পানী অপ্পো,হুয়েহুয়ে,নকিয়া ও ভিভো’র উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, এবং সেবা টেলিকমের কক্সবাজারের আট উপজেলাছাড়াও লোহাগাড়া,সাতকানিয়া,লামা ও আলীকদমের দুইশোজনেরও বেশি সেলস পার্টনার উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও সুশীল সমাজের প্রতিনিধি,সাংস্কৃতিক সংগঠক,ব্যবসায়ী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে অংশ নেন। সামগ্রিক অনুষ্ঠান পরিকল্পনা,নির্দেশনা ও সঞ্চালনায় ছিলেন সেবা টেলিকমের উপদেষ্টা, বিশিষ্ট আবৃত্তিকার,শব্দায়ন আবৃত্তি একাডেমীর পরিচালক জসীম উদ্দিন বকুল।
অনুষ্ঠানে বিক্রয় ক্ষেত্রে ভাল অবদানের জন্য সেরা ১০ সেলস পার্টনারকে বিশেষ সন্মাননা ও উপহার প্রদান করা হয়। এছাড়া বিক্রয় ক্ষেত্রে স্ব স্ব অবদানের জন্য ১৩৩জন সেলস পার্টনারকে উপহার ও সম্মাননাপত্র প্রদান করা হয়।
সেবা টেলিকমের সত্বাধিকারী মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, ফোর জি নেটওর্য়াকসহ মোবাইল প্রযুক্তিগত অত্যাধুনিক সকল সেবা সাধারণ মানুষের হাতের নাগালে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষেই মূলত এ ধরনের উৎসবের আয়োজন। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে,এগিয়ে যাচ্ছে প্রযুক্তি। এ ধরনের প্রযুক্তিগত সকল সেবা দক্ষিণ চট্টগ্রামের মানুষ উপভোগ করবে সে লক্ষেই কাজ করছে সেবা টেলিকম। উৎসবের সবশেষে উৎসবের শেষে ছিলো মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও নৈশ ভোজের আয়োজন।

Top