বাংলাদেশের সামনে এবার ক্যারিবিয়ান চ্যালেঞ্জ

download-3-8.jpg

কক্সবাজার ডেস্ক :
সাতসকালে ফিল্ডিং ট্রেনিং হয়ে গেল। ক্লোজ ক্যাচিংয়ের নতুন কিছু ড্রিল করালেন নতুন কোচ। ব্যাটিং-বোলিং অনুশীলন তো ছিলই। সব মিলিয়ে শুক্রবার সকালে ঘণ্টা চারেকের সেশন। তার পর ড্রেসিং রুমে টিম মিটিং। ছোট্ট সেই সভা শেষেই দেখা গেল ক্রিকেটারদের বাড়ি ফেরার তাড়া। রাতেই ফ্লাইট। তার আগে শেষ সময়ের গোছানো, প্রিয়জনদের সঙ্গে সময় কাটানো আর নিজের মানসিক প্রস্তুতি। বাংলাদেশ দলের সামনে এবার ক্যারিবিয়ান চ্যালেঞ্জ। দুই টেস্ট, তিন ওয়ানডে ও তিন টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে শনিবার প্রথম প্রহরেই ঢাকা ছাড়ছে বাংলাদেশ দল। সফরের শেষ ভাগে যুক্তরাষ্ট্রে দুটি টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে দেড় মাসের লম্বা সফর।
১৫ সদস্যের টেস্ট দলের সবাই অবশ্য যাচ্ছেন না আজ একসঙ্গে। ভিসা জটিলতায় দলের সঙ্গে যেতে পারছেন না মেহেদী হাসান মিরাজ। বিসিবির মিডিয়া ম্যানেজার ও এই সফরে দলের ম্যানেজার রাবিদ ইমাম জানিয়েছেন, পরবর্তী কার্য দিবসে মিরাজের ভিসা হয়ে যাওয়ার কথা। ভিসা পেলে ওই দিনই রওনা হবেন মিরাজ। ছুটিতে যুক্তরাষ্ট্রে থাকা অধিনায়ক সাকিব আল হাসান সেখান থেকেই সরাসরি যোগ দেবেন দলের সঙ্গে।
সবশেষ ২০১৪ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়েছিল বাংলাদেশ। সেই সফরের সঙ্গে একটি মিল আছে এবার। সে বছরের মাঝামাঝি বাংলাদেশের কোচ হয়ে এসেছিলেন চন্দিকা হাথুরুসিংহে। দেশের মাটিতে ভারত সিরিজে দলের সঙ্গে থাকলেও তার আনুষ্ঠানিক দায়িত্ব শুরু হয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর দিয়ে। এবারও ক্যারিবিয়ানেই শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেটের নতুন এক অধ্যায়। শুরু হচ্ছে নতুন কোচ স্টিভ রোডসের পথচলা। দায়িত্ব নেওয়ার পর তিন দিন নতুন ছাত্রদের দেখতে পেরেছেন রোডস। ক্রিকেটারদের সঙ্গে কোচের পারস্পরিক বোঝাপড়া, জানাশোনার জন্য সময়টি খুবই কম। নতুন কোচ এলে বদলে যেতে পারে অনেক কিছুই। ক্যারিবিয়ানের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার আগে বাংলাদেশের জন্য আরেকটি বড় চ্যালেঞ্জ নিজেদের মাঝে মানিয়ে নেওয়া। শেষ দিনের অনুশীলন শেষে শুক্রবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ব্যাটসম্যান মুমিনুল হক বললেন, দ্রুত মানিয়ে নেওয়া জরুরি।
“মাত্র এক-দুইদিন হয়েছে (নতুন কোচ), ওভাবে এখনও বোঝা যাবে না। তবে সম্পর্কের কথা বললে, খুব ভালো হচ্ছে। আশা করি, সবাই দ্রুত মানিয়ে নিতে পারব।” “একজন মানুষের সঙ্গে মিশতে, তাকে বুঝতে সময় লাগে। এখনও পর্যন্ত আমার মনে হয় ভালোই হবে। আমরা কিছু শিখতে পারলে আরও ভালো হবে।” কোচের সঙ্গে মাত্র তিন দিনের অনুশীলন হলেও প্রস্তুতির ঘাটতি দেখছেন না মুমিনুল। “আমার কাছে মনে হয়, শতভাগ প্রস্তুত আমরা। সবাই প্রস্তুত, আমিও প্রস্তুতি। খুব ভালো হয়েছে প্রস্তুতি। পরেরটা ওখানে গিয়ে দেখা যাবে। আপাতত মানসিক ও শারীরিকভাবে সবাই বেশ ভালো প্রস্তুতি নিয়েছে।”
প্রস্তুতি আর নিজেদের সামর্থ্য, দুটি মিলিয়েই দারুণ আত্মবিশ্বাসী মুমিনুল। টেস্ট আর ওয়ানডেতে এগিয়ে রাখছেন নিজেদেরই। “আমার কাছে মনে হয়, টেস্ট তো বটেই, ওয়ানডেতেও আমরা ভালো ক্রিকেট খেলব। শুধু টেস্ট বললে হবে না। ওয়ানডেতে আমরা ওদের চেয়ে ভালো খেলি। টি-টোয়েন্টি বলতে পারব না। তবে টেস্ট-ওয়ানডেতে ভালো কিছু আশা করতে পারি।” আগামী ৪ জুলাই অ্যান্টিগায় শুরু প্রথম টেস্ট। তার আগে আগামী বুধ ও বৃহস্পতিবার দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।
টেস্টের বাংলাদেশ দল: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), মাহমুদউল্লাহ, তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, লিটন কুমার দাস, মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হক, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, কামরুল ইসলাম রাব্বি, রুবেল হোসেন, নুরুল হাসান সোহান, আবু জায়েদ চৌধুরি, নাজমুল হোসেন শান্ত, শফিউল ইসলাম। স্ট্যান্ডবাই: ইয়াসিন আরাফাত, আবু হায়দার, নাঈম হাসান, মোসাদ্দেক হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান।

Top