পিএসএলে শিরোপা ইসলামাবাদের

islamabad-united-reclaim-psl.jpg

কক্সবাজার ডেস্ক :

পাকিস্তান সুপার লিগের দুই চ্যাম্পিয়ন পেশাওয়ার জালমি ও ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের মুখোমুখি লড়াই, যেখানে দ্বৈরথটা কামরান আকমল ও লুক রঙ্কির। আকমল হলেন ব্যর্থ, আর দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে মুগ্ধ করলেন রঙ্কি। তার ব্যাটেই পিএসএলে দ্বিতীয়বার চ্যাম্পিয়ন হলো ইসলামাবাদ। পেশাওয়ারকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে তারা।

করাচির এই ফাইনাল ঘিরে বাংলাদেশিদের উন্মাদনা থেমে যায় দল ঘোষণার পরই। পেশাওয়ার জালমির একাদশে তামিম ইকবালের থাকা হবে না, সেটা জানা গেছে আগেই। তার বদলে ফাইনাল খেলতে করাচিতে উড়ে যাওয়া সাব্বির রহমানকে না রাখায় হতাশ হতে হয়েছে বাংলাদেশি ভক্তদের। অবশ্য ম্যাচ শেষে পুরো পেশাওয়ার হতাশায় ডুবেছে।

নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা চাদরে ঢাকা করাচি জাতীয় স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নামে পেশাওয়ার। দলের নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান আকমল (১) দ্রুত ফিরে গেলে বিপদের আঁচ পায় গতবারের চ্যাম্পিয়নরা।

শাদাব খানের বোলিংয়ে মাত্র ১২১ রানে ৯ উইকেট হারায় পেশাওয়ার। ওয়াহাব রিয়াজ ১৪ বলে ২৮ রানের ঝড় তুলে স্কোরটা লড়াই করার মতো বানান। এছাড়া ক্রিস জর্ডানের ব্যাটে আসে ৩৬ রান, আর লিয়াম ডউসন করেন ৩৩ রান। ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৪৮ রান করে পেশাওয়ার।

শাদাব সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন।

জবাব দিতে নেমে রঙ্কির ঝড়ো ব্যাটিংয়ে সহজ জয়ের আভাস পায় ইসলামাবাদ। ২৬ বলে তিনি ৪টি চার ও ৫ ছয়ে ৫২ রান করে ফিরে গেলে খানিকটা চাপে পড়ে তারা। ২০ রানের ব্যবধানে ৬ উইকেট হারিয়েছিল ইসলামাবাদ। তবে আসিফ আলীর ৬ বলে অপরাজিত ২৬ রানে ১৯ বল হাতে রেখে জয় পায় তারা।

১৬.৫ ওভারে ৭ উইকেটে ১৫৪ রান করে ২০১৬ সালের চ্যাম্পিয়নরা।

ওয়াহাব, হাসান আলী ও জর্ডান দুটি করে উইকেট নেন। ম্যাচসেরা হয়েছেন রঙ্কি।

Top