সবাইকে ছাড়িয়ে মাশরাফি

f2513.jpg

কক্সবাজার ডেস্ক :

ওয়ানডে ক্রিকেটে এক মৌসুমে বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে সর্বাধিক উইকেট নিয়ে রেকর্ডবুকে জায়গা করে নিয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে এক আসরে সর্বাধিক ৩৫ উইকেটের রেকর্ড গত আসরে গড়েছিলেন গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের বাঁহাতি পেস বোলার আবু হায়দার রনি। ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের এক আসরে এটাই ছিল এতদিন পর্যন্ত সেরা সাফল্য।

সোমবার লিগের ১৫তম ম্যাচ খেলতে নেমে রেকর্ড থেকে এক উইকেট দূরে ছিলেন মাশরাফি। এদিন নিজের পঞ্চম ওভারেই ওপেনার রবিউলকে ফিরিয়ে তুলে নেন ৩৬তম উইকেট। আর তাতে আবু হায়দার রনির এক মৌসুমে নেওয়া ৩৫ উইকেটকে টপকে যান মাশরাফি।

ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের এক আসরে এর আগে মাশরাফির সেরা সাফল্য ছিল ২৯ উইকেট। ২০০৯-১০ মৌসুমে আবাহনীর হয়ে এমন কীর্তি গড়েছিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক। নিজের সেই সাফল্যকে একই দলের জার্সিতে ছাড়িয়ে গেলেন এবার। যদিও ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগকে আইসিসি লিস্ট ‘এ’ মর্যাদা দিয়েছে ২০১৩ সালে। সে কারণেই তার কীর্তি রেকর্ডবুকে নেই।

আগের কীর্তিটা রেকর্ডবুকে না থাকলেও সোমবার করা বাংলাদেশের সেরা এই পেসারের রেকর্ডটা উঠে গেছে রেকর্ডবুকে। মাশরাফি চাইলে এই আক্ষেপটা ভুলে যেতে পারেন আজকের এমন অর্জনে।

চলমান আসরে বোলিংয়ে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে মাশরাফিকে ভালোই চ্যালেঞ্জ ছুড়েছিলেন মোহামেডানের পেস বোলার কাজী অনিক। ১১ ম্যাচে ২৮ উইকেটে থামতে হয়েছে কাজী অনিককে। এরপর এক এক করে মাশরাফি ভেঙেছেন ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ২০১৩-১৪ মৌসুমে গাজী ট্যাংক ক্রিকেটার্সের আরাফাত সানি ও ফরহাদ রেজার ২৯ উইকেটের রেকর্ড। ২০১৬ সালে ভিক্টোরিয়ার শ্রীলঙ্কান স্পিনার চতুরঙ্গ ডি সিলভার ৩০ উইকেট, ২০১৪-১৫ মৌসুমে প্রাইম দোলেশ্বরের বাঁহাতি স্পিনার ইলিয়াস সানির ৩১ উইকেট, ২০১৭ সালে প্রাইম দোলেশ্বরের বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানির ৩৪ উইকেট। ২০১৭ সালে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের আবু হায়দার রনির ৩৫ উইকেটের রেকর্ড ভেঙে ৩৬ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন মাশরাফি।

ক্যারিয়ারের শেষলগ্নে দাঁড়িয়ে মাশরাফি একের পর এক কীর্তি গড়েই চলছেন। এই লিগেই অনেক অর্জন তার। ঢাকা লিগে এবারই প্রথমবারের মতো ৫ উইকেটের মুখ দেখেছেন। এক ইনিংসে ৫ বলে হ্যাটট্রিকসহ ৪ উইকেটে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে অষ্টম বোলার হিসেবে রেকর্ডও গড়েছেন।

Top